বাড়ি বাংলাদেশ *বাসায় টা’ইম বো’মা রেখে চাঁ’দা দাবি, না দিলে মালিকের ছেলে’কে গু’লি ক’রে...

*বাসায় টা’ইম বো’মা রেখে চাঁ’দা দাবি, না দিলে মালিকের ছেলে’কে গু’লি ক’রে মে’রে ফেলা হবে*

5

*বাসায় টা’ইম বো’মা রে’খে চাঁ’দা দা’বি, না দিলে মালিকের ছে’লেকে গু’লি ক’রে মে’রে ফে’লা হবে* *টাঙ্গাইলের গোপালপুরে একটি বা’সায় বো’মা সা’দৃশ্য বস্তু রেখে চিঠি দিয়ে লাখ টা’কা চাঁ’দা দা’বি করা হয়েছে। এ বিষয়টি প্রশাসনকে অবগত করলে ওই বাসার মালিকের ছেলে-মে’য়েকে গু’লি ক’রে মে’রে ফেলার হু’মকি দিয়ে রাখা হয় চিঠিতে। বুধবার (২৪ নভেম্বর) সকালে উপজেলার পৌরসভার নন্দনপুর বাজার এলাকায় রাজ্জাক মিয়া লিটুর বাসার সামনে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, গোপালপুর পৌরসভার নন্দনপুর বাজার এলাকায় আব্দুর রাজ্জাক মিয়া লিটু ভবন নির্মাণ করছেন। তার পাশেই একটি টিনের ঘরে রিপন আহম্মেদ ও ঝড়না বেগম ও তার আম্মা রেহেনা পারভীন বসবাস করেন। সকালের দিকে রেহেনা পারভীন নির্মাণাধীণ বাসার সামনে গিয়ে রিমোট কন্ট্রোল লা’ল বো’মা সা’দৃশ্য ব’স্তু দে’খতে পান। পরে তাদের থাকার ঘরের সামনে দুটি চিঠি দেখতে পান। চিঠিতে লেখা ছিল, তার ছেলে বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন।

এতে এক লাখ টাকা দিতে হবে। টাকা না দিলে এবং যদি বিষয়টি প্রশাসনকে অবহিত করা হয়, টা’ইম বো’মাটি রি’মোট ক’ন্ট্রোলের মাধ্যমে বি’স্ফোরণ ও বাসার মালিকের ছে’লেকে গু’লি করে মে’রে ফেলা হবে। চিঠিতে আরও জানানো হয়, রেখে যা’ওয়া বো’মা দি’য়ে দুটি বাস গা’ড়ি ধ্বংস করার ক্ষমতা রয়েছে। নির্দিষ্ট জায়গায় টাকা দিয়ে না এলে রাত ১২টার পর রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে বো’মাটি বি’স্ফোরিত ক’রা হবে।

রেহেনা পারভীনের ভাতিজা আল মাসুদ বলেন, বিষয়টি পৌর মেয়রকে অবহিত করা হয়। পরে পুলিশ এসে বাড়িতে ঘিরে রেখেছে। আমরা ধারণা করছি, কোনো কি’শোর গ্যাং অথবা মা’দক’সেবী’রা এ কাজ করতে পারে। এই এলাকায় কিশোর গ্যাংদের উ’ৎপাতস’হ মা’দকসে’বীদের দৌ’রাত্ম্য বেড়ে গেছে।

এ বিষয়ে গোপালপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মামুন ভুইয়া বলেন, খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বো’মা না অন্য কিছু, এই মুহূর্তে কিছুই বলা যাচ্ছে না। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। ঢাকা থেকে বো’ম ডি’সপোজা’ল টিম আসার পর বো’মাসদৃশ্য বস্তুটি নিয়ে কাজ শুরু করা হবে।

পূর্ববর্তী নিবন্ধ*দক্ষিণ চট্টগ্রামে ২৭ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত*
পরবর্তী নিবন্ধ*মা হবেন পরীমনি, স্বাগতম জানাতে গান গাইলেন মমতাজ*